37 C
Bangladesh
শুক্রবার, এপ্রিল ১৯, ২০২৪

এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করার ঘোষণা

শিক্ষাএক সপ্তাহের মধ্যে নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্তি করার ঘোষণা

আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে নতুন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমপিওভুক্ত করার ঘোষণা আসবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। রোববার (৫ জুন) সচিবালয়ে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ তথ্য জানান।

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এমপিওভুক্তির ঘোষণাটি আসার কথা ছিল গত মার্চে। এরপর বলা হয় মে মাসে আসবে। অবশেষে জুন মাসের শুরুতে এমপিওভুক্তির ঘোষণা দিলেন শিক্ষামন্ত্রী।

দীপু মনি বলেন, যখন এমপিওভুক্তির ঘোষণা আসবে তখন থেকে শিক্ষকরা এই সুবিধা পাবেন। এক সপ্তাহের মধ্যে ঘোষণা দেওয়া হলে এই অর্থবছরের বাজেট থেকেই শিক্ষকরা এমপিও সুবিধা পাবেন।

আরো পড়ুন:  অস্ট্রেলিয়ার বন্ড ইউনিভার্সিটিতে আন্ডারগ্র‍্যাজুয়েট স্কলারশিপ 

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান জাতীয়করণের বিষয়ে তিনি বলেন, জাতীয়করণের কাজ বেশ এগিয়েছে। এই বছরের মধ্যেই শেষ হয়ে যাবে।

প্রয়োজনে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আবার দেন-দরবার করব

তৃতীয় শিক্ষক নিয়োগে প্রয়োজনে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আবারও দেন-দরবার করা হবে বলে জানান শিক্ষামন্ত্রী।

তিনি বলেন, ব্যক্তিগতভাবে আমার মনে হয়, তৃতীয় শিক্ষক প্রয়োজন। এখন কোর্সের যে কলেবর ও সময় বৃদ্ধি করা হয়েছে, তাতে সেই কোর্স দুজন শিক্ষকের দ্বারা করানো সম্ভব নয়। তৃতীয় শিক্ষক দরকার। কিন্তু আমরা একা কিছু করতে পারি না। আমাদের এসব সিদ্ধান্ত জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়।

আরো পড়ুন:  বিশ্ববিদ্যালয় পাঠ্যক্রমে নৈতিক শিক্ষা ‍যুক্ত করার আহ্বান ইউজিসির

দীপু মনি বলেন, আমরা যখন এমপিও নীতিমালা সংশোধন করে পাঠাই, তখন অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে তৃতীয় শিক্ষকের পদটি অনুমোদন দেওয়া হয়নি। এটা নিয়ে আবার অর্থ মন্ত্রণালয়ে দেন-দরবারে যেতে হবে। আশা করছি, তারা বিষয়টিকে বিবেচনা করবে।

মন্ত্রী বলেন, আমরা এমপিও নীতিমালা রিভিউ করেছিলাম। সেখানেও মাদ্রাসা এবং মাউশির মধ্যে একটা তারতম্য হয়ে গেছে। সেটাকেও আমরা সংযুক্ত করব। তার সঙ্গে তৃতীয় শিক্ষকের বিষয়টিও দেখব।

আরো পড়ুন:  স্মার্ট বাংলাদেশ গড়তে ডিজিটাল স্বাক্ষর বাস্তবায়নের আহ্বান ইউজিসি’র

তিনি বলেন, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় এবং মাউশির তিন-চারটি সিদ্ধান্তের মধ্যে পার্থক্য আছে। সেটাকে সংযুক্ত করার জন্য ইতোমধ্যে আমরা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে একটা প্রস্তাবনা পেয়েছি। তারা একটি কমিটি করবে, সেখানে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য আমাদের দুজন প্রতিনিধিও থাকবে। কমিটি বসলে আশা করছি, দ্রুত এ সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles