30 C
Bangladesh
শুক্রবার, মার্চ ১, ২০২৪

দিলারা হানিফ রীতা থেকে নায়িকা পূর্ণিমা

বিনোদনদিলারা হানিফ রীতা থেকে নায়িকা পূর্ণিমা

দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পূর্ণিমা,যিনি তার সৌন্দর্য এবং অভিনয় দক্ষতার মধ্য দিয়ে দেশের সর্বস্তরের মানুষের মন জয় করে নিয়েছে। বৃদ্ধ থেকে শুরু করে তরুণ প্রজন্মেও তার অভিনয় দক্ষতায় মুগ্ধ। সৌন্দর্যের এই রাণী চট্টগ্রামের ফটিকছড়িতে জন্মগ্রহণ করেন। চট্রগ্রামে জন্মগ্রহণ করলেও ঢাকায় বেড়ে ওঠেন। তার পারিবারিক নাম দিলারা হানিফ ও ডাক নাম রিতা। ছোটবেলা থেকেই তিনি দুষ্ট মিষ্টি এবং রোমান্টিক প্রকৃতির ছিলেন।দিলারা হানিফ রীতা থেকে নায়িকা পূর্ণিমা
মাএ ১৬ বছর বয়সে ক্লাস নাইনে থাকা অবস্থায় সুন্দর চেহারার অধিকারিণী এই অভিনেত্রী শুরুতেই অভিনয় এর সাথে সাথে অসাধারণ শারীরিক সৌন্দর্যের জন্য সবার মন জয় করে নেন। পূর্ণিমা তার ক্যারিয়ার জীবন শুরু করেছেন ১৯৯৭ এ মুক্তি পাওয়া “এ জীবন তোমার আমার” সিনেমার মধ্য দিয়ে। নানা ব্যস্ততার মধ্য দিয়ে ক্যারিয়ার অতিবাহিত করছিলেন এই অভিনেত্রী। পরবর্তীতে ২০০৭ সালে পারিবারিকভাবে আহমেদ জামাল ফাহাদের সাথে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন এবং ২০১৪ সালে তিনি প্রথম কন্যা সন্তানের মা হন।দিলারা হানিফ রীতা থেকে নায়িকা পূর্ণিমা

আরো পড়ুন:  কাজল একবার শাহরুখের প্রশংসা করে বলেছিলেন, 'শাহরুখ খানই একমাত্র অভিনেতা যিনি প্রত্যেক ভক্তকে ছবি দেবেন এবং সবাইকে গুরুত্ব দেবেন'। হিন্দি সিনেমার খবর - বলিউড


২০০৩ সালে মুক্তি পায় তার সব থেকে সফল ছবি মতিউর রহমান পানু পরিচালিত মনের মাঝে তুমি। এটি বাংলাদেশ-ভারতের যৌথ প্রযোজনায় বাংলাদেশের সবথেকে সফল ছবির মধ্যে অন্যতম। ২০০৪ সালে রাবেয়া খাতুনের উপন্যাস মেঘের পরে মেঘ অবলম্বনে চাষী নজরুল ইসলাম পরিচালিত মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ছায়াছবি মেঘের পরে মেঘ ছবিতে অভিনয় করেন। এছাড়া কাজী নজরুল ইসলামের গল্প রাক্ষুসী নিয়ে নির্মিত চলচ্চিত্র রাক্ষুসীতে ও অন্যতম কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেছেন। ২০০৫ সালে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের শাস্তি গল্প অবলম্বনে নির্মিত শাস্তি চলচ্চিত্র চন্দরা চরিত্রে অভিনয় করেন।
২০০৬ সালে তার অন্যতম বাণিজ্যিক সফল ছায়াছবি হৃদয়ের কথা মুক্তি পায় এবং এই চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য তারকা জরিপে শ্রেষ্ঠ চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পী (নারী) বিভাগে মেরিল-প্রথম আলো পুরস্কার অর্জন করেন। এছাড়াও অসংখ্য ছবি, নাটকে অভিনয় করেছেন।দিলারা হানিফ রীতা থেকে নায়িকা পূর্ণিমা
“তারুণ্য প্রকৃতির দান, কিন্তু বয়স হলো একটি শিল্পকর্ম যা মানুষ নিজে হাতে গড়ে” তেমনই পূর্ণিমা তার অভিনয় ও সৌন্দর্য দিয়ে বছরের পর বছর মাতিয়ে রেখেছেন তার ভক্তদের। ভক্তরা তাকে কেউ ডাকে জাতির ক্রাস,কেউবা বলে দুই প্রজন্মের ভালোবাসার রং।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles