fbpx
10.1 C
Munich
সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২২

আইডিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীদের ইফতার 

Must read

একটি কলেজ যেমন একটি শিক্ষাঙ্গন হচ্ছে শিক্ষার জায়গা। এখানে সবাই শিক্ষা নিতে আসে। কিন্তু শিক্ষা  নিতে এসে এখানে গড়ে ওঠে হাজারো বন্ধুত্ব। যারা দিনের শুরু থেকে শেষ অব্দি হাসি খেলায় মেতে থাকে একসঙ্গে। একটি কলেজে পড়তে এসে তৈরি হয় নতুন সব বন্ধু নতুন শিক্ষক এবং নতুন সব জায়গা।
আইডিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীদের ইফতার 
প্রতিবছর নতুন শিক্ষার্থীরা শিক্ষাঙ্গনে আসেন এবং প্রতিবছর আগের বছরের শিক্ষার্থীরা বিদায় নেন এটাই তো নিয়ম। কিন্তু যতটুকু সময় জন্য কলেজ জীবনটা পার হয়  বন্ধুদের সঙ্গে এটাই তো চিরকাল লেখা থাকে স্মৃতির পাতায়।
রাজধানী ঢাকার  ধানমন্ডি সেন্ট্রাল রোড এলাকার আইডিয়াল কলেজ। ছুটির দিন গুলো ছাড়া সব দিন গুলোতেই কলেজের শিক্ষার্থীরা মেতে থাকে উল্লাসে। এ যেন এক শান্তির জায়গা। আইডিয়াল কলেজে এসে যেন প্রফুল্ল হয়ে উঠে সকলের মন। আইডিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাস পূর্ণ করে রাখে তাদের নিজস্ব ভালো লাগায়। কলেজের নিদিষ্ট পোশাকের বাইরে এবার বন্ধুরা সবাই এক হয়ে আয়োজন করে এক ইফতারের। ঢাকার এক রেস্টুরেন্টে মিলিত হয় শতাধিক বন্ধু।  সবাই এক হয়ে অংশ নেন ইফতারের।
আইডিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীদের ইফতার 
ভাগাভাগি করে নেন সবাই আনন্দ।  বিকেল চারটায় থেকে ধীরে ধীরে সবাই একত্রিত হতে থাকে। তারপর একসঙ্গে বন্ধুরা মিলে আদায় করে আসরের নামাজ। তারপর শুরু হয় সবার সঙ্গে সবার পরিচয়। হই হুল্লোড়ে মেতে উঠে সবাই। তারপর একসঙ্গে সাজানো টেবিলে তাদের নির্ধারিত ইফতার পরিবেশন করা হয়। ধীরে ধীরে জমতে থাকে আড্ডা। একসঙ্গে সবাইকে পেয়ে অনেকেই আবেগী ও হয়ে পড়ে।
আইডিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীদের ইফতার
মাগরিবের আজানের পর সবাই ইফতার করে। তারপর সবাই আবার মেতে উঠে আনন্দে গল্পে। তারপর সবার সঙ্গে সবার সেলফিবাজি চলতেই থাকে। এর পর একসঙ্গে ফ্রেম বন্দি হয় সবাই। আইডিয়াল ইভেন্ট মেনেজমেন্টের সদস্যরা মিলেই এই আয়োজন করেন।
আইডিয়াল কলেজের শিক্ষার্থীদের ইফতার 
ইভেন মেনেজমেন্টের সদস্যরা বলেন, আমরা বন্ধুত্বপূর্ণ একটি আয়োজন করতে চেয়েছিলাম। পরিকল্পনা মতোই সবার সহযোগিতায় ভবিষ্যতে ও এমন আয়োজন হবে বলে আশা রাখি।
আইডিয়ালের প্রতিনিধি সোহানুর রহমান সোহাগ জানান, আয়োজনটা বেশ ভালো ছিল। এমন আয়োজনে বন্ধুত্ব আরও বাড়বে বলে আশা রাখি।
বন্ধুত্বের জয় হোক এমন প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়েই পরিকল্পনা করা হয় ইফতার আয়োজনের। যা সফল ভাবেই শেষ হয়।
মোঃ সোহানুর রহমান সোহাগ /এই ক্যাম্পাস 

আরো পড়ুন

x