27 C
Bangladesh
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২৪

উদ্যোক্তা হওয়ার জন্য যে ধাপগুলো আপনাকে মাথায় রাখতে হবে 

অন্যান্য খবরউদ্যোক্তা হওয়ার জন্য যে ধাপগুলো আপনাকে মাথায় রাখতে হবে 

প্রথম উদ্যোক্তা আসলে বলতে কি বোঝায় এইটা আমরা প্রায় সবাই কম বেশি জানি। উদ্যোক্তা শব্দটার মধ্যেই নিহিত আছে, নতুন চিন্তাধারা, নতুন ভাবনা, নতুন টেকনিক, পরিকল্পনা বাস্তবায়ন এবং কঠোর পরিশ্রম। আপনি যদি কঠোর পরিশ্রমী হোন, তাহলেই একমাত্র সফল হতে পারবেন।

এজন্য কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ কথা পয়েন্ট আকারে না বললেই নয়

১. আপনার একটি নতুন পরিকল্পনা থাকতে হবে 

নতুন পরিকল্পনা যদি না হয়, তাহলে আপনি সেটাকে উদ্যোক্তা হিসেবে অগ্রসর হচ্ছি এটা বলতে পারবেন না। যেমন, কেউ যদি বলে আমি বড় করে দোকান দিবো একটি। এখন কথা হচ্ছে দোকান তো সবাই দেয়, আর এটি একটি পরিচিত আর কমন ব্যাপার। আপনি যদি বলেন, এই এলাকায় মূলত সমস্যাটা কি, সেই সমস্যার সমাধান আমি করবো আমার নতুন ব্যবসার মাধ্যমে। তাহলে একটা বিষয় আসছে, আপনাকে আগে সমস্যা খুঁজে বের করতে হবে। তারপর তার সমাধানের পথ বের করতে পারলেই, আপনি নতুন পরিকল্পনা হাতে নিয়ে মাঠে নেমে পড়তে পারবেন। যাকে অবশ্যই উদ্যোক্তা হিসেবে আখ্যায়িত করা যায়। তাই, নতুন পরিকল্পনা বের করুন।

আরো পড়ুন:  গুগল কিভাবে টাকা আয় করে? আপনি কিভাবে টাকা আয় করবেন?

২. পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে হবে অতি দ্রুত 

আপনি একটি পরিকল্পনা করলেন, অথচ তার বাস্তবায়ন করলেন না। তাহলে সেই পরিকল্পনার কোনো মূল্য থাকলো না। আর সময়ের সাথে সাথে বাস্তবায়নের আগ্রহটাও কমে যায়। এটা মানুষ জাতির একটা স্বভাব।

আরো পড়ুন:  ২২ বছর পর ধর্ষণের অভিযোগ থেকে খালাস ইউপির এক ব্যক্তি

৩. পুরোপুরি পরিকল্পনা এখনো করতে পারেননি? 

বাস্তবায়ন করতে ব্যর্থ হওয়ার প্রায় সবাই একটি অজুহাত দেখায় তা হলো, এখনো পুরোপুরি পরিকল্পনা করতে পারিনি। তাই কাজও শুরু করতে পারিনি। তাদের উদ্দ্যেশ্যে বলবো, আপনার শুরুটা করা আগে দরকার। বাজার পর্যবেক্ষন করে আপনার কাজ শুরু করে দিন। দেখবেন শুরু করলে ধীরে ধীরে কাজের মধ্যে অনেক অভিজ্ঞতা আসবে, আর অনেক ভালো ভালো পরিকল্পনা তখনই পেয়ে যাবেন। একটা কাজের পর আরেকটা কাজ কি করবেন, তা আগের কাজ করার সময়ই বুঝে যাবেন।

৪. প্রাথমিক পরিকল্পনা করার সময় যে বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে

আপনি যে সমস্যাটি নিয়ে ভাবছেন যে তার সমাধান আপনি করবেন আপনার ব্যবসার মাধ্যমে উদ্যোক্তা হিসেবে। সে ক্ষেত্রে যে বিষয়গুলো মাথায় রাখতে হবে, সমস্যাটি কতজন মানুষের এবং কোন বয়সের মানুষের। সমস্যাটি সমাধান করলে আরো কি কি যুক্ত করা যেতে পারে আপনার ব্যবসার সাথে। সমস্যাটির সমাধান নিয়ে কতোটা আগ্রহ তারা। যদি সবকিছু ঠিকঠাক থাকে তাহলে সময় অপচয় না করে, প্রাথমিক কিছু পরিকল্পনা আর ভবিষ্যৎ এ কি হতে পারে এই বিষয়গুলো মাথায় নিয়ে আপনার উদ্যোক্তা হওয়ার পথে অগ্রসর হোন। মনে রাখবেন, পরিশ্রম কখনো বৃথা যায় না।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles