28 C
Bangladesh
শনিবার, জুলাই ১৩, ২০২৪

উত্তরাঞ্চলের উন্নয়ন আমাদের হাতেই রয়েছে-বেরোবি উপাচার্য

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়উত্তরাঞ্চলের উন্নয়ন আমাদের হাতেই রয়েছে-বেরোবি উপাচার্য
বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে (বেরোবি) অর্থনীতি বিভাগের আয়োজনে ‘জাতীয় বাজেটে বরাদ্দে পিছিয়ে রংপুর বিভাগ করণীয়’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ রবিবার (১৮ জুন) কবি হেয়াত মামুদ ভবনের অর্থনীতি বিভাগের গ্যালারি রুমে অনুষ্ঠিত হয়।উত্তরাঞ্চলের উন্নয়ন আমাদের হাতেই রয়েছে-বেরোবি উপাচার্য
সেমিনার অনুষ্ঠানে অর্থনীতি বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কাজী নেওয়াজ মোস্তফার সঞ্চালনায় ও বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. মোঃ মোরশেদ হোসেনের সভাপতিত্ব আহবায়ক হিসেবে বক্তব্য রাখেন সহযোগী অধ্যাপক হাবিবুর রহমান। প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হাসিবুর রশীদ।আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. আবু ছালেহ মোহাম্মদ ওয়াদুদুর রহমান (ড. তুহিন ওয়াদুদ), একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক উমর ফারুক, নদী বাচাও তিস্তা বাচাও সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সফিয়ার রহমান, রংপুর সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট এর সভাপতি আব্দুল ওয়াদুদ সরকার এবং বেরোবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি পোমেল বড়ুয়া।উত্তরাঞ্চলের উন্নয়ন আমাদের হাতেই রয়েছে-বেরোবি উপাচার্য
উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ হাসিবুর রশীদ বলেন, উত্তরাঞ্চলের কৃষিসহ অন্যান্য শিল্পখাতে অর্থনৈতিক কর্মকান্ডের মাধ্যমে রংপুর অঞ্চলের উন্নয়ন সম্ভব। তবে রংপুর অঞ্চলের জন্য কোন ধরনের অর্থনৈতিক কর্মকান্ড প্রয়োজন তা এই এলাকার মানুষকে প্রথমে নির্ধারণ করতে হবে। অর্থনৈতিক কর্মকান্ড নির্ধারণ করতে পারলে সেটিকে এগিয়ে নিতে সরকারের তরফ থেকে প্রয়োজনীয় সহযোগিতা পাওয়া সম্ভব হবে।উত্তরাঞ্চলের উন্নয়ন আমাদের হাতেই রয়েছে-বেরোবি উপাচার্য
প্রফেসর ড. আবু ছালেহ মোহাম্মদ ওয়াদুদুর রহমান বলেন, রংপুর বিভাগে ২ কোটির কাছাকাছি জনসংখ্যা। দেশে ৩ লাখ কোটি টাকা মেগা প্রজেক্ট চলছে এতে রংপুর বিভাগ পাবেনা। কারণ এটার সাথে রংপুরের সম্পর্ক নেই। রংপুরের সাথে সম্পর্ক রানা প্লাজার সাথে কারন রানা প্লাজার যখন ধস হবে সেখানে ৯০ শতাংশ শ্রমিক পাওয়া যাবে রংপুর অঞ্চলের। এই রংপুর অঞ্চলের মানুষের পোষাক কারখানা চলে সেই বিদেশে রপ্তানি করে যে টাকা আসে সেটাতে দেশের উন্নয়ন হয় কিন্তু আমার জিবনের বিনিময়ে সর্বচ্চ ত্যাগের বিনিময়ে যে উন্নয়ন সেটা ভোগ করে দেশের সব বিভাগ রংপুর বিভাগ ছাড়া। রংপুর বিভাগে দেশের ৪ কোটি মানুষের খাদ্য-শশ্য উতপাদন হয়। আমার বিভাগের উতপাদনে অন্য বিভাগের মানুষ নিশ্চিন্তে ঘুমিয়ে থাকে বেচে থাকে আর সারাদেশের দারিদ্য সীমার নিচে রয়ে যায় রংপুর বিভাগ। দিনদিন সেটা বাড়তেই থাকে।
সহযোগী অধ্যাপক উমর ফারুক বলেন, যেখানে যেমন বরাদ্ধ দরকার সেখানে তেমন দেওয়া উচিত। কিন্তু অন্যন্য বিভাগের থেকে রংপুর বিভাগ অনেক পিছিয়ে আর সেখানে রংপুরকে বরাদ্ধ না দিয়ে অন্য বিভাগকে বরাদ্ধ দিয়েই চলেছে। বর্তমান বাজেটে রংপুর বিভাগের জন্য কোনো বরাদ্ধ নেই। যার বরাবরের মতো রংপুর বিভাগ বৈষ্যমের শিকার।উত্তরাঞ্চলের উন্নয়ন আমাদের হাতেই রয়েছে-বেরোবি উপাচার্য
নদী বাঁচাও তিস্তা বাচাঁও সংগ্রাম পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সফিয়ার রহমান বলেন, রংপুর বিভাগ কৃষি অঞ্চল। দিনদিন সারের দাম বৃদ্ধি পায়, উতপাদন ব্যয় বৃদ্ধি পায় কিন্তু খাদ্য-শশ্য বিক্রি করতে গেলে দাম বৃদ্ধি পায় না। আজকে আমরা কৃষকদের বাচাতে পারছিনা। এই অঞ্চলের বেশ কয়েকটি জেলা কৃষিপ্রধান হওয়ায় কৃষকের সংখ্যা বেশি বলে লোকসান হওয়ায় দারিদ্রসীমার নিচে চলে আসছে। বৈষম্য শুধু বরাদ্ধে নই বৈষম্য আমাদের উতপাদনেও। উত্তরাঞ্চলের উন্নয়ন আমাদের হাতেই রয়েছে-বেরোবি উপাচার্য
উল্লেখ্য,  সেমিনারে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. সরিফা সালোয়া ডিনা ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন মোঃ শরিফুল ইসলাম।  সেমিনারে অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles