31 C
Bangladesh
বুধবার, মে ২৯, ২০২৪

নোবিপ্রবিতে বিভীষিকাময় ২১ আগস্ট পালিত

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়নোবিপ্রবিতে বিভীষিকাময় ২১ আগস্ট পালিত
২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের জনসভায় ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় শাহাদাত বরণকারীদের স্মরণে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (নোবিপ্রবি) শোক র‌্যালি ও কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ করা হয়েছে। নোবিপ্রবিতে বিভীষিকাময় ২১ আগস্ট পালিত
আজ রবিবার (২১ আগস্ট ২০২২) সকালে নোবিপ্রবির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলমের নেতৃত্বে একটি শোক র‌্যালি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে শুরু হয়ে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণের মাধ্যমে শেষ হয়। নোবিপ্রবিতে বিভীষিকাময় ২১ আগস্ট পালিত
অনুষ্ঠানের শুরুতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলায় নিহতদের স্মরণে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। বর্বরোচিত এ গ্রেনেড হামলায় সেদিন আহত হয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনা। মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আইভি রহমানসহ নিহত হয়েছিলেন ২৪ জন। আহত হন আরও প্রায় পাঁচ শতাধিক।নোবিপ্রবিতে বিভীষিকাময় ২১ আগস্ট পালিত
২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ১৮তম বার্ষিকীতে ছাত্র পরামর্শ ও নির্দেশনা বিভাগের পরিচালক বিপ্লব মল্লিকের সঞ্চালনায় ও নোবিপ্রবির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকীর সভাপতিত্বে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার প্রাঙ্গনে সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে নোবিপ্রবি উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. দিদার-উল-আলম বলেন, ‘২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বাংলাদেশের ইতিহাসে একটি কলঙ্কময় দিন। এদিন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যাচেষ্টার মাধ্যমে খুনিরা এক বিভীষিকাময় পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছিল। জাতির পিতাকে যারা হত্যা করেছে তাদের উত্তরসূরিরাই ২১শে আগস্টের রক্তাক্ত হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। বঙ্গবন্ধুকন্যাকে বহুবার হত্যার চেষ্টা করেছে ষড়যন্ত্রকারীরা, কিন্তু তারা সফল হয়নি। জাতির পিতার রক্তের ঋণ কোনদিনও শোধ হবে না, কিন্তু বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য আমাদের সচেতন থাকতে হবে। আমাদের প্রধানমন্ত্রী, দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে একটি সুখি-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ বিনির্মাণে সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু।’ উপাচার্য তাঁর বক্তব্যে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্টের সকল শহিদ এবং ২১ শে আগস্ট ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় নিহত শহিদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন।
নোবিপ্রবিতে বিভীষিকাময় ২১ আগস্ট পালিত
সভাপতির বক্তব্যে নোবিপ্রবির উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আব্দুল বাকী ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউতে ভয়াবহ গ্রেনেড হামলায় নিহত শহিদদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন নোবিপ্রবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ, রেজিস্ট্রার (অ.দা) মোহাম্মদ জসীম উদ্দিন, অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি সাখাওয়াত হোসেন, সাধারণ সম্পাদক মেজবাহ উদ্দীন পলাশ। অনুষ্ঠানে নোবিপ্রবির বিভিন্ন অনুষদের ডিন, ইনস্টিটিউটের পরিচালকবৃন্দ, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যানবৃন্দ, হলের প্রভোস্টবৃন্দ, শিক্ষক সমিতির নেতৃবৃন্দ, অফিসার্স এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দসহ ছাত্র-শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles