25 C
Bangladesh
বুধবার, এপ্রিল ১০, ২০২৪

দক্ষিণ বঙ্গের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ পবিপ্রবি

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়দক্ষিণ বঙ্গের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ পবিপ্রবি
২০০০ সালের ৮ জুলাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পটুয়াখালী জেলার দুমকি উপজেলায় সাবেক পটুয়াখালী কৃষি কলেজের অবকাঠামোতে বিশ্ববিদ্যালয়টির ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন। প্রতিষ্ঠার পর থেকে বিশ্ববিদ্যালয়টি আধুনিক বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ক্ষেত্রে অবদানের জন্য আজ দেশ-বিদেশে বিশেষ পরিচিতি লাভ করেছে।
দক্ষিণ বঙ্গের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ পবিপ্রবি
প্রাথমিকভাবে  চারটি অনুষদে ছাত্রছাত্রী ভর্তির মাধ্যমে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু হয়, যা সময়ের পরিক্রমায় আজ ৮টি অনুষদের অধীনে কৃষি অনুষদ, কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদ, বিজনেস অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অনুষদ, মৎস্যবিজ্ঞান অনুষদ, অ্যানিমাল সায়েন্স অ্যান্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদ, পরিবেশ বিজ্ঞান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অনুষদ, নিউট্রিশন সায়েন্স অনুষদ এবং ল অ্যান্ড ল্যান্ড অ্যাডমিনিস্ট্রেশন অনুষদে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে। এই বিশ্ববিদ্যালয়ে আমেরিকার কোর্স ক্রেডিট সিস্টেম পদ্ধতি চালু রয়েছে। সেমিস্টার পদ্ধতির এ শিক্ষা ব্যবস্থায় কোর্স যথাসময়ে শেষ হওয়ায় কোনো সেশনজট থাকে না। ৮ টি সেমিস্টারে এ শিক্ষাবর্ষ শেষ হয়।
দক্ষিণ বঙ্গের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ পবিপ্রবি
একাডেমিক ভবনের পাশেই মসজিদের অবস্থান। মসজিদের পাশেই রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য কেন্দ্র এবং এর বিপরীত দিকে রয়েছে লাইব্রেরি ভবন। দুইতলা বিশিষ্ট লাইব্রেরি ভবনে ২০ হাজারের বেশী বিভিন্ন ধরণের একাডেমিক বই,ভলিউম ও সাময়িকা রয়েছে। এই লাইব্রেরির ভেতরে রয়েছে মুজিব কর্ণার। যেখানে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক ১০০ টির মতো বই রয়েছে।
দক্ষিণ বঙ্গের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ পবিপ্রবি
৮৯.৯৭ একর আয়তনের ওপর প্রতিষ্ঠিত এই বিশ্ববিদ্যালয়টিতে বর্তমানে স্নাতক পর্যায়ে ৩ হাজার ৬৯১ জন, স্নাতকোত্তর পর্যায়ে ৪৫১ জন এবং পিএইচডি পর্যায়ে ২৪ জন ছাত্রছাত্রী অধ্যয়নরত আছেন। শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের যাতায়াতের জন্য রয়েছে বাস, মিনিবাস ও মাইক্রোবাসের সুবিধা। বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণে ভবনগুলোতে লাগানো হয়েছে সিসি ক্যামেরা।
দক্ষিণ বঙ্গের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ পবিপ্রবি
বিশ্ববিদ্যালয়টির ডেপুটি রেজিস্ট্রার মুহাম্মাদ ইমাদুল হক প্রিন্স জানান, শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ২৫৩ শিক্ষক, ১৮৩  কর্মকর্তা ও ৫২৯ কর্মচারী নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। শিক্ষার্থীদের আবাসন সুবিধা প্রদানের জন্য ৫টি ছাত্র হল এবং ৩টি ছাত্রী হল রয়েছে।
দক্ষিণ বঙ্গের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ পবিপ্রবি
সেশনজটমুক্ত এ বিশ্ববিদ্যালয়টিতে দক্ষ গ্র্যাজুয়েট তৈরি করার লক্ষ্যে নানাবিধ পরিকল্পনার কথা জানান বিশ্ববিদ্যালয়টির স্বনামধন্য ভাইস-চ্যান্সেলর দেশবরেণ্য কৃষি বিজ্ঞানী প্রফেসর ড. স্বদেশ চন্দ্র সামন্ত।তিনি জানান, কৃষি ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে পবিপ্রবির কৃষি অনুষদের শিক্ষকগণ দেশের কৃষিতে সমৃদ্ধি আনয়নকল্পে ফসলের নতুন নতুন জাত উদ্ভাবনে নিরলস পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।
দক্ষিণ বঙ্গের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠ পবিপ্রবি
এ ছাড়া এ বিশ্ববিদ্যালয়টির উত্তরোত্তর উন্নয়নের জন্য বর্তমানে প্রায় সাড়ে চারশ কোটি টাকার অধিকতর উন্নয়ন প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় দুটি ১০তলা আবাসিক হল ও একটি ১০তলা একাডেমিক ভবন নির্মিত হবে। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা কার্যক্রম ও অবকাঠামোগত ব্যাপক উন্নতি সাধিত হবে বলে জানান তিনি।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles