31 C
Bangladesh
সোমবার, জুন ২৪, ২০২৪

বশেমুরবিপ্রবিতে শিক্ষককে অপমান,প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়বশেমুরবিপ্রবিতে শিক্ষককে অপমান,প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে(বশেমুরবিপ্রবি) কর্মকর্তা কর্তৃক শিক্ষককে অপমান, হুমকি এবং মা ও স্ত্রীকে নিয়ে কটুক্তি করায় দ্বিতীয় দিনের মতো মানববন্ধন ও প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করছেন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

আজ সোমবার (১ আগষ্ট) সকাল ১০ টায় ফাইন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের সাধারণ শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেন। এরপর ১২ টায় চোখে কালো কাপড় বেঁধে মৌন মিছিল ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন।

আরো পড়ুন:  শিক্ষামন্ত্রীর কথায় শাবিপ্রবি ভিসির দুঃখপ্রকাশ 

মানববন্ধনে ফাইন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের ২য় বর্ষের শিক্ষার্থী আসান উল্লাহ বলেন, “অপরাধ যেই করুক তার উপযুক্ত শাস্তি হওয়া উচিত। আমরা শিক্ষার্থীরা ক্লাস বর্জন করে আন্দোলনে এসেছি। কিন্তু কেন? বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এখনো চুপ করে আছে। কেন তারা কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছেনা। আমরা চাই প্রশাসন দ্রুত এর পদক্ষেপ গ্রহন করুক নইলে আমরা কঠোর পদক্ষেপে যেতে বাধ্য হবো।”

৪র্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ইতি দাস বলেন, ‘শিক্ষকরা জাতি গঠনের কারিগর। একজন শিক্ষককে অপমান করা মানে পুরো জাতিকে অপমান করা। আমি বিশ্বাস করি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন নিহার কান্তি বিশ্বাসের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করবেন এবং তাকে দ্রুত বহিষ্কারের ব্যবস্থা করে আমাদের ক্লাসে ফিরে যেতে সাহায্য করবেন।

আরো পড়ুন:  ফুল ও মিষ্টি দিয়ে নবীনদের বরণ করে নিলেন বশেমুরবিপ্রবি আইন বিভাগ

এছাড়াও নিহার কান্তি বিশ্বাসের বিভিন্ন অপকর্ম,তার অশোভনীয় আচরণসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, শিক্ষার্থী কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ অনেকের সাথে তার অসৌজন্যমূলক আচরণ এবং আঞ্চলিক ক্ষমতায়নের অনেক অভিযোগ তুলে ধরেছেন শিক্ষার্থীরা। মানববন্ধনের সকল শিক্ষার্থীদের দাবী তাকে দ্রুত বিচারের আওতায় এনে শিক্ষার পরিবেশ নিশ্চিত করা হোক। নাহলে তারা আরো কঠোর কর্মসূচিতে যাবেন বলে ঘোষনা দেওয়া দেন।

আরো পড়ুন:  বশেমুরবিপ্রবির দেয়ালে দেয়ালে নবী (সাঃ) এর নাম

উল্লেখ্য যে, গত ২৮ জুলাই ২০২২ তারিখে মার্কেটিং বিভাগের অফিস স্টাফ নিহার কান্তি বিশ্বাসের দূ্র্ব্যবহার প্রসঙ্গে ফাইন্যান্স এন্ড ব্যাংকিং বিভাগের প্রভাষক মোঃ গোলাম সারোয়ার শিক্ষক সমিতি বরাবর এ অভিযোগের প্রেক্ষিতে আবেদন করেন।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles