29 C
Bangladesh
মঙ্গলবার, জুলাই ১৬, ২০২৪

পবিপ্রবি তে বিশ্ব দুগ্ধ দিবস-২০২২ উদযাপিত

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়পবিপ্রবি তে বিশ্ব দুগ্ধ দিবস-২০২২ উদযাপিত
প্রতি বছর ১লা জুন সারা পৃথিবীতে “বিশ্ব দুগ্ধ দিবস” হিসেবে পালন করা হয়। বাংলাদেশেও যথাযথ মর্যাদায় এ দিবস পালিত হয়ে আসছে। “বিশ্ব দুগ্ধ দিবস-২০২২” উপলক্ষে  পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়-এর ডেইরি সায়েন্স বিভাগের  উদ্যোগে ০১/০৬/২০২২খ্রি. তারিখ দুপুর ১২:০০ – ০১:০০ ঘটিকায় ” Milk as a potential source of Bio-active Components”  শীর্ষক সেমিনার ও আলোচনা সভা এনিমেল সায়েন্স এন্ড ভেটেরিনারি মেডিসিন অনুষদের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।
উক্ত সেমিনার ও আলোচনা সভায় অনুষদের শিক্ষকবৃন্দ ও বিভিন্ন বর্ষের শিক্ষার্থী বৃন্দ অংশগ্রহণ করেন। বিষয় ভিত্তিক মূল গবেষণাপত্র উপস্থাপন করেন ডেয়রি সায়েন্স  বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ডঃ মোঃ আব্দুল মতিন। সেমিনার থেকে জানা যায় দুধ ও দুগ্ধজাত পণ্য মানব দেহের জন্য কেবল আদর্শ খাবার-ই নয়,  উপরন্তু দুধে বহুবিধ জৈবিক ও বিপাকীয় গুণাবলী রয়েছে।
দুধের থেরাপিউটিক গুণাগুণের  মধ্যে Opioid, Antimicrobial, Antihypertensive, Antioxidative, Antithrombotic, Anti-appetising, Immuninomodulatory ও Mineral binding উল্লেখযোগ্য। বিশেষ করে দুগ্ধ প্রোটিনস্থ কার্যকর পেপটাইড জীবাণুরোধী ও ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধি প্রতিরোধ করতে সক্ষম। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক প্রফেসর ডঃ মোঃ আশরাফুল ইসলাম “বিশ্ব দুগ্ধ দিবস” এর প্রেক্ষিতে বর্ণনায় বলেন ২০০১ সাল থেকে FAO জুন মাসের ১ তারিখ কে World Milk Day হিসেবে ঘোষণা করে; যদিও বিশ্বের নানা প্রান্তে বহু আগে থেকেই জুন মাসের ১ তারিখ বা  তার আশেপাশে এরূপ দিবস পালনের রেওয়াজ ছিলো।
এবারের উদযাপনে #Enjoy Dairy #Dairy Net Zero এ দুইটি বিষয়কে প্রাধান্য দেওয়া হয়েছে। প্রথম বিষয়টিতে ডেয়রি খাতের সব বিষয় কে এবং  নিরাপদ দুগ্ধ ও দুগ্ধজাত পন্যের গুণাগুণ অবহিত করার নিমিত্তে ২৯ থেকে ৩১ মে আনন্দ  রেলি উৎসাহিত করা হয়েছে। দ্বিতীয়  বিষয়টি ডেয়রি খাতকে একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে নেট গ্রীন হাউজ গ্যাস (GHG) নিঃসরণ শূন্য করার লক্ষ্যে গবেষণা, পরিকল্পনা গ্রহণ ও বাস্তবায়নে সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সেমিনার ও সিম্পোজিয়াম কে প্রাধান্য দিয়েছে।
অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকবৃন্দ ও শিক্ষার্থীদের আলোচনায় প্রতীয়মান হয় ডেয়রি খাতে সঠিক প্রণোদনা পেলে বাংলাদেশ আর্থিক, সামাজিক ও পরিবেশগত টেকসই উন্নয়নের দিকে দ্রুত অগ্রসর হবে। পরিশেষে এক আনন্দময় পরিবেশে পাস্তুরিত তরল দুধ সকলের মাঝে বিতরণের মাধ্যমে দিবসটির উদযাপন সমাপ্ত ঘোষণা করা হয়।

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles