31 C
Bangladesh
সোমবার, জুলাই ২২, ২০২৪

ঢাবির হোম ইকেনোমিক্স ইউনিটের সার্টিফিকেটে যোগ হতে চলেছে বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যম

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ঢাবির হোম ইকেনোমিক্স ইউনিটের সার্টিফিকেটে যোগ হতে চলেছে বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যম

(ইসরাত জাহান প্রিয়ানা)  ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর হোম ইকোনোমিক্স ইউনিটের অন্তর্ভুক্ত রয়েছে মোট ৬ টি কলেজ।যার মধ্যে ১টি সরকারি এবং বাকি ৫ টি কলেজ বেসরকারি। ঢাবির হোম ইকেনোমিক্স ইউনিটের সার্টিফিকেটে যোগ হতে চলেছে বাংল ও ইংরেজি মাধ্যম

এগুলো হলো-

১.গভ. কলেজ অব এ্যাপ্লাইড হিউম্যান সাইন্স (আজিমপুরে অবস্থিত, এটি একমাত্র সরকারি হোম ইকোনোমিক্স কলেজ এবং এই ক্যাম্পাসে রয়েছে ছাত্রীদের জন্য স্থায়ী হলের সুবিধা যার নাম শেখ হাসিনা হল। প্রায় ১বছর আগে কলেজটির পূর্বের নাম কলেজ অব হোম ইকোনোমিক্স পরিবর্তন করে রাখা হয় গভ. কলেজ অব এ্যাপ্লাইড হিউম্যান সাইন্স)। ঢাবির হোম ইকেনোমিক্স ইউনিটের সার্টিফিকেটে যোগ হতে চলেছে বাংল ও ইংরেজি মাধ্যম

আরো পড়ুন:  সতিকসাসের সংবর্ধনা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

২.বাংলাদেশ কলেজ অব হোম ইকোনোমিক্স

৩.ন্যাশনাল কলেজ অব হোম ইকোনোমিক্স

৪. আকিজ কলেজ অব হোম ইকোনোমিক্স

৫.ময়মনসিংহ কলেজ অব হোম ইকেনোমিক্স এবং

৬.বরিশাল কলেজ অব হোম ইকোনোমিক্স ( সদ্য নতুন কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে ২০২২ সালে) ঢাবির হোম ইকেনোমিক্স ইউনিটের সার্টিফিকেটে যোগ হতে চলেছে বাংল ও ইংরেজি মাধ্যম

এই কলেজসমূহের প্রতিটি বিভাগের শিক্ষার্থীরা এতদিন যাবৎ বাংলা কিংবা ইংরেজি যেকোনো মিডিয়ামে
পড়াশোনা করতে পারতো নিজের ইচ্ছামতো এবং যেকোনো মিডিয়ামে পরীক্ষা দিতে পারতো।তবে তাদের সার্টিফিকেটে কোন মাধ্যমে গ্রাজুয়েশন সম্পন্ন করেছে সেসব উল্লেখ থাকতো না। ঢাবির হোম ইকেনোমিক্স ইউনিটের সার্টিফিকেটে যোগ হতে চলেছে বাংল ও ইংরেজি মাধ্যম

আরো পড়ুন:  রোজায় চলমান রয়েছে ঢাবির হোম ইকোনোমিক্স ইউনিটের কার্যক্রম

তবে সম্প্রতি এই বছর থেকে জানা যাচ্ছে, শিক্ষার্থীরা নিজ নিজ পছন্দ অনুযায়ী বাংলা কিংবা ইংরেজি মাধ্যমে পরীক্ষা দিতে পারলেও তাদের সার্টিফিকেট বা সনদপত্রে কে কোন মিডিয়ামে পরীক্ষা দিয়েছে অর্থাৎ বাংলা বা ইংরেজি সেই বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করা হবে। ঢাবির হোম ইকেনোমিক্স ইউনিটের সার্টিফিকেটে যোগ হতে চলেছে বাংল ও ইংরেজি মাধ্যম

ফলে শিক্ষার্থীদের মাঝে বাংলার পরিবর্তে ইংরেজি মাধ্যমে পরীক্ষা দেয়ার প্রবণতা বাড়ছে এবং এটি তাদের উচ্চ শিক্ষায় সহায়ক ভূমিকা রাখতে চলেছে।পাশাপাশি দেশের নারী শিক্ষা ব্যবস্থারও এক ধাপ অগ্রসরতা বৃদ্ধি পেতে চলেছে। ঢাবির হোম ইকেনোমিক্স ইউনিটের সার্টিফিকেটে যোগ হতে চলেছে বাংল ও ইংরেজি মাধ্যম

আরো পড়ুন:  জুন মাসের ১ম সপ্তাহেই শুরু হতে যাচ্ছে ন্যাশনাল কলেজ অব হোম ইকোনোমিক্স ১ম বর্ষের ১ম ইনকোর্স

এছাড়াও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এর উপাচার্য আখতারুজ্জামান স্যার ১ম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা চলাকালীন ক্যাম্পাস পরিদর্শনে এসে জানিয়েছিলেন যে,

“শুধু মেয়েরাই নয়, ছেলেদেরকেও হোম ইকোনোমিক্স এ যেসব কর্মমুখী বিষয়ে পাঠদান করানো হয় তার জন্য পরবর্তীতে ছেলেদের হোম ইকোনোমিক্স কলেজে ভর্তির ব্যাপারে নতুন কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।”

Check out our other content

Check out other tags:

Most Popular Articles